আত্মকথন ১

আজকাল কী হয়েছে জানিনা । সারা শরীরে সবসময় ভীষণ অস্বস্তি । যেহেতু মনের বা শরীরের কষ্ট নিরাপদ ফেসবুক ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করি না তাই জীবনটা আহা উহু তেই চালিয়ে নেব এই প্রত্যয়টা দৃঢ় হয় ।

আজকাল মাঝে মাঝেই হঠাত করে ঘুমিয়ে পড়ি, ঘুম আমার কিছুক্ষণের পেন কিলার, বেশ জেনেরিক পেনকীলার । কিছুটা সিডেটিভ এর মত কাজ ও বলাযায় । হাতে থাকা ফোন, বই অজান্তেই খসে পড়ে, অর্ধেক লেখা শব্দেরা খাতায় অপেক্ষা করে ঘুমিয়ে পড়া স্রষ্টার নিথর লেখনির পুনর্জীবনের ।

পেনকীলারের মতই কিছুক্ষণ যন্ত্রণার রেহাই, আর ঘুম ভাঙলেই এফেক্ট শেষ হয়ে যাওয়া সাময়িক পেনকীলারের মত যন্ত্রণাটা ফিরে আসে অনেকগুণ বেশী হয়ে ।

হঠাত স্বপ্নে কেন তুমি আমায় ক্ষমা করে দিলে ? বুকে টেনে নিলে ঠিক যেমন ভাবে আমি ফ্যান্টাসি করেছি অনুতাপের মাঝে । বাস্তবের দুনিয়ায় জেগে কেন বার বার ভুল হয়ে যায় ?

যন্ত্রণাটা আবার ফিরে আসছে । লকগেট ভেঙ্গে যাওয়া টারবাইন ভাঙা স্রোতের মত । দুমরে মুচড়ে যাওয়া টারবাইনের ধাতব টুকরো আমার সারা সত্ত্বায় ক্ষত করতে এগিয়ে আসছে আমি জানি । অ্যাসিডের মত রক্ত ঝড়বে আমার কলম বেয়ে যা ভিতরে ভিতরে প্রতি মুহুর্তে ঝাঁঝড়া করছে আমায় ।

সৃষ্টির মুহুর্তে জননীর যন্ত্রণা হয়ত সৃষ্টির আবশ্যিক শর্ত ।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s