রুদ্র আসছে

বহুদিন আগের মেগাপিক্সেল সিস্টেমে তোলা ছবিটা তার ধাতব হাতটায় ধরে অনেক কষ্টে চোখের সামনে এনে একবার দেখল রুদ্র । রাজকণ্যার মুখের যে সারল্যের ছোঁয়াটায় তার ব্যাকডেটেড ইমম্যাচিওর ভার্সানটা মোহিত ছিল সেই সারল্যের ছিটে-ফোঁটাও রুদ্র তার হাইপাওয়ার্ড টেরাপিক্সেল লেন্সের চোখ দিয়ে খুঁজে পেলনা ।

– “তুমি আসলে অস্থানে হওয়া দাদের চুলকুনির মত । যতই মলম লাগানো হোক না কেন কিছুদিন পর সামান্য হলেও মাথাচাড়া দেবে, তখন আবার মলমের খোঁজ করতে হবে । আর অদ্ভুত ভাবে চু্লকানোর মত পরিশ্রমসাধ্য কাজে মানুষের স্যাটিস্কেকশনের অভাব হয় না । বরং না হলেই কি যেন একটা মিস হয়ে গেল মনে হয়” — এক্সপ্লানেশনের সুরে নিজের মনেই স্বগতোক্তি করল রুদ্র ।

তার হাতের সারফেস হিটিং কয়েলটা অন হয়ে গেছে, আস্তে আস্তে বাড়ছে তাপমাত্রা । কালো হয়ে ধীর গতিতে পুড়ে যাচ্ছে ছবিটা । নতুন পাওয়া ধাতব হৃদয়টা তার কাছে একটা এসেন্সিয়াল এলিমেন্ট, স্মৃতির কাল্পনিক ডাস্টবিন নয় ।

______________________________________________________________
শিগগীরই আসছে রুদ্র, নতুন টিজার দিলুম, টিজড হলে কন্টিনিউ হবে ।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s